আড়াই লাখ টাকা হলে বাঁচবে ফুটফুটে শিশু জাহিদ!

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯

ফুটফুটে চার বছরের শিশু জাহিদ হাসান। ব্রেইন টিউমারের সঙ্গে লড়াই করে চলেছে সে।

শিশু জাহিদ হাসান ঢাকার আগারগাঁও তালতলা নিউরোসায়েন্স হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডা. জাহিদ হোসেনের অধীনে চিকিৎসাধীন। অপারেশনসহ তার চিকিৎসার জন্য আড়াই লাখ টাকার প্রয়োজন। কিন্তু এ অর্থ ব্যয় করার সাধ্য তার পরিবারের নেই।

কী করে ছেলেকে বাঁচাবে এ নিয়ে চরম শংকায় আর উৎকণ্ঠায় আছেন জাহিদ হাসানের মা-বাবা।

জাহিদ হাসান রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী পৌরসভার চকসিংগা গ্রামের হতদরিদ্র ভ্যানচালক একরাম হোসেনের ছেলে।

ফলে নিরুপায় হয়ে তারা প্রধানমন্ত্রীসহ দেশের হৃদয়বান ও বিত্তবান মানুষের কাছে সাহায্যের প্রার্থনা করেছেন।

এ বিষয়ে জাহিদ হাসানের মা তারা বেগম জানান, শ্বশুর আলী মুদ্দিনের মৃত্যুর পর আড়াই শতাংশ জমি পেয়েছি। এই জমির ওপর দুটি টিনের ছাপড়াঘর তুলে কোনোমতে বসবাস করি।

তিনি বলেন, স্বামী ভ্যান চালিয়ে যে আয় হয়, সে টাকা দিয়ে সংসার ও তিন ছেলে এবং দুই মেয়ের লেখাপড়ার খরচ করতে পারছি না। এখন ছোট ছেলে জাহিদ হাসানের ব্রেইন টিউমার হয়েছে। অভাবের সংসারে নুন আনতে পান্তা ফুরায়। এখন ছেলের চিকিৎসা করাব কীভাবে? এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন তারা।

বিভিন্ন স্থানে এক সপ্তাহ থেকে মাইকিং করেও তার পাশে কেউ দাঁড়ায়নি। ফলে তার ভ্যানচালক বাবা এমরান আলী দুশ্চিন্তায় পড়েছেন। নিরুপায় হয়ে দেশের হৃদয়বান ও বিত্তবান মানুষের কাছে সাহায্যের প্রার্থনা করেছেন।

সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা-এমরান আলী, বিকাশ নম্বর ০১৭৪৮-১১৭৩৭২।