গর্ভাবস্থায় ভ্রমণ বা জার্নি কতটুকু নিরাপদ?

অনলাইন ডেস্ক অনলাইন ডেস্ক

সৃষ্টিবার্তা ডটকম

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ১৯, ২০১৯

গর্ভাবস্থার দিনগুলোয় গর্ভবতীকে ভ্রূণের বিষয়ে সতর্কতা অবলম্বন করতে হয়। বিশেষ করে গর্ভাবস্থায় ভ্রমণ গর্ভের শিশুর জন্য কোনো কোনো ক্ষেত্রে ঝুঁকির কারণ হয়ে উঠতে পারে। তবে একবারে বাইরে যাওয়া বন্ধ করে দেওয়াও ঠিক নয়। অনেক কর্মজীবী নারীকে বিশেষ এ সময়টাতে অফিস করতে হয়। ফলে নিয়মিত অফিসের জন্য যাতায়াত করতে হয়। ভ্রমণের সময় কিছু বিষয়ের দিকে খেয়াল রাখলে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা থেকে রেহাই পাওয়া যায়।

জেনে নিন গর্ভাবস্থায় ভ্রমণে কী ধরনের সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে: 

•    গর্ভাবস্থার প্রথম তিন মাসে গর্ভপাতের সম্ভাবনা বেশি থাকে এসময় দীর্ঘ ভ্রমণ না করাই ভালো
•    রাস্তায় যদি কোথাও যেতে হয় অবশ্যই ঝাঁকুনি হয় এমন রাস্তায় যাওয়া যাবে না
•    দূরে যেতে হলে একা না গিয়ে সঙ্গে কাউকে নিন
•    পেটের ওপরে সিট বেল্ট লাগানো উচিত নয় এতে অতিরিক্ত চাপের সৃষ্টি হতে পারে
•    ঘরে তৈরি হাল্কা খাবার সাথে রাখুন
•    দীর্ঘ সময়ের যাত্রায় মাঝে মাঝেই বিরতি নিয়ে নিন
•    অনেক দেশে পর্যটকদের জন্য বিশেষ কিছু টিকার উল্লেখ থাকে।  সেই সব দেশে যাওয়ার আগে টিকাগুলো নিয়ে নিতে হবে
•    খুব গরম বা অনেক ঠাণ্ডায়, প্রচণ্ড ভিড়ের জায়গাগুলোতে ভ্রমণের সময় নিতে হবে বাড়তি সতর্কতা
•    ভারি ব্যাগ বহন করা যাবে না
•    কয়েক দিনের জন্য যদি কোথাও যেতে হয় তবে অবশ্যই নিজের চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করে নিন।

এছাড়া গর্ভাবস্থার ৩২সপ্তাহ পার হয়ে গেলে প্লেন ভ্রমণের সময় বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের ভ্রমণের জন্য ফিটনেসের অনুমতিপত্র নিয়ে আসতে হয় বলে  জানান নভোএয়ারের সেলস্ এন্ড মার্কেটিং হেড মেজবাউল ইসলাম।

গর্ভাবস্থায় ওপরের বিষয়গুলো মেনে ব্যাগ গুছিয়ে বেরিয়ে পরুন, কোথাও ঘুরে এলে শরীর মন দুটোই ভালো থাকবে।

সূত্র: বাংলানিউজ