ঘরে থাকুন, আবারও জমজমাট ঈদ করব: র‌্যাব ডিজি

অনলাইন ডেস্ক অনলাইন ডেস্ক

সৃষ্টিবার্তা ডটকম

প্রকাশিত: মে ২২, ২০২০

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে মানুষকে বিনোদন কেন্দ্রে ঘুরতে বের না হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) মহাপরিচালক চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন। তিনি বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতির কারণে এবছর আমরা ভিন্ন মাত্রায় ঈদ করতে যাচ্ছি। নিজেরা প্রয়োজন ছাড়া যেন ঘরেই থাকি। আবারও জমজমাট ঈদ করব।’

শুক্রবার বেলা ১১টায় পবিত্র ঈদুল ফিতরের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে অনলাইন বিফ্রিংয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

ঈদের নামাজের জামাত এবার মসজিদের হবে, সেখানে র‌্যাব কী ধরণের নিরাপত্তা নিবে জানতে চাইলে র‌্যাব মহাপরিচালক বলেন, ‘অন্যান্য সময় ঈদের জামাত স্বল্প সময়ের জন্য হয়। কিন্তু এবার দীর্ঘসময় মানে একাধিকবার জামাত হবে। তাই আমাদের বেশি সময় দায়িত্ব পালন করতে হবে। তাছাড়া কীভাবে মানুষ মসজিদে যাবে, কীভাবে সামাজিক দূরত্বে থাকবে, লাইনে কীভাবে দাঁড়াবে- সবই ঠিক রাখতে কাজ করবে র‌্যাব সদস্যরা। এক কথায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ঈদের জামাতে নামাজ আদায়ে আমাদের (র‌্যাব) কর্মী বাহিনীরা কাজ করবে।’

দেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সরকার খোলা মাঠে কিংবা ঈদগাহে ঈদের জামাত আয়োজন না করতে অনুরোধে জানিয়েছে। বিকল্প হিসেবে মসজিদে একাধিকবার জামাত অনুষ্ঠিত হবে। তবে সেটা অবশ্যই স্বাস্থ্যবিধি মেনে। এরই মধ্যে এ ব্যাপারে মসজিদগুলোতে নির্দেশনা পাঠিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।

ঈদের দিন স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মানার আহ্বান জানিয়ে চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, ‘ঈদের দিন সাধারণ মানুষ আত্মীয় স্বজনদের সঙ্গে মিলিত হতে চায়। নিজের জীবন রক্ষায় এবারের ঈদ ঘরের মধ্যেই থাকুন। আমরা আইন প্রয়োগ এবং দায়িত্ব পালন করছি। আমরা বাইরে আছি, আপনাদের নিরাপত্তায়। আপনারা ঘরে থাকুন।’

ঈদ উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলায় কোন হুমকি আছে কিনা জানতে চাইলে র‌্যাব প্রধান চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, ‘আশ্বস্ত করতে চাই আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকবে। কারণ, র‌্যাব করোনা পরিস্থিতিতে তাদের অপারেশনাল কার্যক্রম অব্যাহৃত রেখেছে। গোয়েন্দারা মাঠে কাজ করছে। এই ধরণের কোন হামলা বা হুমকি নেই এবারও।’

ঈদের আগে হঠাৎ ব্যক্তিগত গাড়িতে চলাচল স্বাভাবিক করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত কতটুকু সঠিক হলো, জানতে চাইলে এলিট ফোর্সটির প্রধান বলেন, ‘সরকার যে সিদ্ধান্ত নিবে সেটা আমরা পালন করছি। তারা (সরকার) হয়ত যথযথ সিদ্ধান্তই নিয়েছে। তবে গণপরিবহণ তো চলছে না। যারাই ঢাকার বাইরে যাচ্ছেন বা আসছেন অবশ্যই স্বাস্থ্য বিধি মেনেই আসছেন।’

ঈদের পরে ছুটি শেষে মানুষ যখন ঢাকায় ফিরবে তখন আবার করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকতে পারে। এ ব্যাপারে এক প্রশ্নের জবাবে র‌্যাব ডিজি বলেন, ‘সবাইকে আহ্বান করব সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ভালো মতো ফিরবেন। গাদাগাদি করে ফিরবেন না।’