নালিতাবাড়ীতে বিয়ের প্রলোভনে কিশোরী ধর্ষণ

শেরপুরের নালিতাবাড়ী থেকে পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে এক কিশোরীকে বিয়ের প্রলোভনে ফেলে ভাগিয়ে নিয়ে কয়েকদিন ধর্ষণের পর অভিভাবকের কাছে ফিরিয়ে দিয়েছে মোখলেছুর রহমান (২০) নামে এক যুবক। এ ঘটনায় ভোক্তভোগী কিশোরীর পিতা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন।
পুলিশ জানায়, উপজেলার খলাভাঙ্গা গ্রামের জামির উদ্দিন স্বপরিবারে নরসিংদীর একটি ইটভাটায় কাজ করতেন। একই ভাটায় স্বপরিবারে কাজ করতেন প্রতিবেশি উপজেলা হালুয়াঘাটের মোকামিয়া গ্রামের দুলাল মিয়া। উভয় পরিবার সেখানে বসবাস করা অবস্থায় জামির উদ্দনের কিশোরী (১৪) কন্যার সাথে দুলাল মিয়ার ছেলে মোখলেছুরের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। একপর্যায়ে ইটের মৌসুম শেষ হয়ে গেলে উভয় পরিবার বাড়িতে চলে আসে। এমতাবস্থায় গেল বছরের ৩ অক্টোবর ওই কিশোরীকে বিয়ে করার কথা বলে মোখলেছুর ভাগিয়ে নিয়ে ঢাকায় চলে যায়। সেখানে রেখে ফুসলিয়ে অবৈধভাবে কিশোরীর সাথে একাধিকবার মেলামেশা করে। কয়েকদিন পর কিশোরীর খালাকে ফোন করে নিয়ে যেতে বললে ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে পরিবারের লোকজন।
পরে ভোক্তভোগী কিশোরীর পিতা জামির উদ্দিন বাদী হয়ে ওই বছরের ৯ ডিসেম্বর শেরপুর আদালতে অভিযোগ দাখিল করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে আদালত নালিতাবাড়ী থানা পুলিশকে এজাহার গ্রহণের নির্দেশ দেন। এরই প্রেক্ষিতে মামলাটি আমলে নেয় থানা পুলিশ। পরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই সবুর ১৬ জানুয়ারি বুধবার জবানবন্দি গ্রহণের জন্য কিশোরীকে হেফাজতে আনেন।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই সবুর ও থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল খায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: সৃষ্টি বার্তা থেকে কপি করা যাবে না।
0 Shares
Share via
Copy link
Powered by Social Snap