স্ত্রী ও শাশুড়ির অপমান সহ্য করতে না পেরে যুবকের আত্মহত্যা

স্ত্রী ও শাশুড়ির অপমান সহ্য করতে না পেরে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নববিবাহিত এক শিক্ষার্থী রবিউল আলম (২১) নামে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

সাভারের নিজ বাসা থেকে বৃহস্পতিবার (৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ওই শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রবিউল বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের ছাত্র ছিলেন।

পরিবারের সঙ্গে সাভার পৌরসভার বাজার রোড এলাকায় বসবাস করতেন তিনি। পড়াশোনার পাশাপাশি টিউশনি করে সংসার চালাতেন রবিউল।

দীর্ঘদিন প্রেমের সম্পর্কের পর গত ১৬ ডিসেম্বর সাভারের উত্তরপাড়া মহল্লার স্থানীয় বাসিন্দা খোকনের মেয়ে ইতি আক্তারকে বিয়ে করেন তিনি।

প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন, রবিউলের চেয়ে ইতির পরিবার আর্থিকভাবে অনেক স্বচ্ছল। রবিউল মেধাবী হওয়ায় তার সঙ্গে ইতির বিয়ে দেয় ইতির পরিবার। বিয়ের পর রবিউল আরও বেশি আর্থিক সমস্যায় পড়ে যান।

চলতি মাসের ভাড়া পরিশোধ করতে না পেরে উপায়ন্তর না দেখে শ্বশুরবাড়ি থেকে উপহার হিসেবে পাওয়া একটি আংটি বন্ধক রেখে ঘরভাড়া পরিশোধ করেন তিনি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে রবিউলের স্ত্রী ইতি ও শাশুড়ি বৃহস্প্রতিবার সকালে রবিউলকে উপহাস ও অপমান করেন।

রবিউলের স্বজনদের অভিযোগ, অপমান সহ্য করতে না পেরেই আত্মহত্যার পথ বেঁচে নেন রবিউল। তারা এর বিচার দাবি করেন।

সাভার মডেল থানার ওসি এএফএম সায়েদ জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: সৃষ্টি বার্তা থেকে কপি করা যাবে না।
0 Shares
Share via
Copy link
Powered by Social Snap