১৩ দিনের শিশুকে হত্যা করে পায়খানার ট্যাংকিতে লুকিয়ে রাখে মা

কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে ১৩ দিনের শিশুকে হত্যার দায় স্বীকার করেছেন মা। রোববার দুপুরে তাকে কুড়িগ্রাম জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ। শিশুর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে লাশ।

পুলিশ জানায়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে শিশুটির মা উপজেলার বামনডাঙ্গা ইউনিয়নের লুছনী গ্রামের দিনমজুর বায়োজিদ আহমেদের স্ত্রী বিলকিছ আক্তার (৩১) শনিবার সকাল ১০ টার পর যে কোনো সময় শিশুটিকে হত্যা করে। পরে লাশ পায়খানার ট্যাংকিতে লুকিয়ে রাখে। গোসল সেরে দুপুরের খাওয়া দাওয়াও করে সে।

একসময় তার কোলে শিশুটিকে দেখতে না পেয়ে পরিবারের লোকজন তাকে জিজ্ঞেস করলে সে কিছু জানে না বলে জানায়। এরপর শিশুটিকে বাড়ির চারদিক খুঁজতে থাকে তারা। এক পর্যায়ে তারা দেখতে পায় বাড়ির পায়খানার ঢাকনা সরানো। তার পাশে পরে আছে শিশুটির ব্যবহৃত কাপড়। এতে তাদের সন্দেহ আরও তীব্র হয়।

তারা আবারো বিলকিছকে জোড় দিয়ে জিজ্ঞেস করলে দুপুর ২টায় সে সেখান থেকে লাশ উদ্ধার করে। বিকালে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশুর লাশসহ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার মাকে থানায় নিয়ে যায়।

নাগেশ্বরী থানার এসআই সারওয়ার পারভেজ জানান, শনিবার রাতে শিশুটির দাদা সাবেক ইউপি মেম্বার জেলাল উদ্দিন বাদী হয়ে বিলকিছ আক্তারকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

0 Shares
Share via