আজ-  ,
basic-bank
সংবাদ শিরোনাম :

ছিনতাইয়ের অভিযোগে পাঁচ ছাত্রলীগ কর্মী বহিষ্কার করেছে জাবি প্রশাসন

সাঈদ বিন ইসলাম, জাবি প্রতিনিধি ; জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের এক কর্মচারীর জামাতাকে ছিনতাই, অপহরণ ও মারধরের অভিযোগে শাখা ছাত্রলীগের পাঁচ কর্মীকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। বিশ্ববিদ্যালয় শৃঙ্খলা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানান প্রক্টর আ স ম ফিরোজ-উল-হাসান।

তিনি বলেন, রোববার সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ে শৃঙ্খলা কমিটির সভায় অভিযুক্ত পাঁচ শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়। সোমবার তা কার্যকর হয়। বহিষ্কার থাকাকালীন তারা নিয়মিত ক্লাস-পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে না। অপরাধের বিষয়টি তাদের পরিবারকে অবহিত করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ‘ঘটনাটির অধিকতর তদন্তের জন্য ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক আতিকুর রহমানকে প্রধান করে চার সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে ৭ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

সাময়িক বহিষ্কৃত ছাত্রলীগ কর্মীরা হল- বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের ৪৪ ব্যাচের সঞ্জয় ঘোষ, ৪৫ ব্যাচের সরকার ও রাজনীতি বিভাগের মোহাম্মদ আল-রাজি, ভূতাত্ত্বিক বিজ্ঞান বিভাগের রায়হান পাটোয়ারী, দর্শন বিভাগের মোকাররম হোসেন শিবলু ও কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শাহ মোস্তাক সৈকত।

শনিবার ভোরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মচারী আলমগীর হোসেনের জামাতা মোহাম্মদ মনির সরদারকে বিশমাইল এলাকা থেকে ধরে বোটানিক্যাল গার্ডেন এলাকায় নিয়ে মারধর, মোবাইল ফোন ও টাকা ছিনিয়ে নেয়ার পর মুক্তিপণ দাবি করে বহিষ্কৃত পাঁচ শিক্ষার্থী।

এ সময় তাকে দিয়ে বাড়িতে ফোন করে এক লাখ টাকা দাবি করে ছিনতাইকারীরা। মুক্তিপণ না দিলে তাকে মাদক চোরাকারবারি হিসেবে ধরিয়ে দেবে বলেও ভয় দেখায় তারা। খবর পেয়ে আলমগীর হোসেনসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েক কর্মচারী ঘটনাস্থলে গেলে তিনজনকে আটক করে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা শাখায় তুলে দেন।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।