দিনাজপুরে ২য় শ্রেণির শিক্ষার্থীর চিঠিতে বন্ধ হলো ইট ভাটা

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ২য় শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর চিঠি ভাইরাল হওয়ায় বন্ধ হলো ইট ভাটা। ঘটনাটি ঘটেছে দিনাজপুরের পাবর্তীপুরে হয়বতপুর গ্রামে। ইট ভাটার দূষণে তিক্ত হয়ে সে দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের (ফেসবুকে) একটি দরখাস্ত পোষ্ট করার পর তড়িৎ গতিতে ব্যবস্থা নেয় জেলা প্রশাসক। বন্ধ করে দেয়া হয় ইটভাটা। এমন একটি কাজের জন্য শিশুটিকে সাধুবাদ জানিয়েছেন এলাকাবাসীসহ স্কুলের সহপাঠী ও শিক্ষকরা।

দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলার হয়বতপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২য় শ্রেণির শিক্ষার্থী মায়িশা মনোয়ারা মিশু। স্কুলের সহপাঠিদের সঙ্গে স্কুলে যাওয়া আসা এবং ক্লাস করার সময় পার্শ্ববর্তী ইটভাটার কালো ধোঁয়ায় শ্বাসকষ্টসহ পরিবেশ দূষণের কবলে পড়ে।
সে স্কুলের দুই পাশে যমুনা ও বিএম ব্রিক্স নামের দুটি ইট ভাটার মালিক এর বিষয়টি তুলে ধরলে তাদের অভিযোগ তোয়াক্কা না করে ইটভাটাটি চালু রাখে। বাধ্য হয়ে মাইশা অভিযোগ করে ডিসি বরাবর একটি চিঠির মাধ্যমে। তার বাবা মমিনুল ইসলাম চিঠি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে (ফেসবুকে) ছড়িয়ে দিলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে যমুনা নামের ইটভাটাটি বন্ধ করে দেয়া হয়। আর বিএম নামের ইটভাটাটি পরিবেশ দূষণের কারণে গতবছরেই বন্ধ করে দেয়া হয়।
শিশু মায়িশা মনোয়ারা মিশুর চিঠি ছিল এরকম:
‘মাননীয় ডিসি স্যার,
আমরা দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর উপজেলার হয়বতপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়ি। আমাদের স্কুলের পাশে বিপ্লব নামে এক লোক ইটের ভাটা দিয়েছে। ভাটার কালো ধোয়ায় আমাদের শ্বাস কষ্ট হয়।… চোখ জ্বালা করে। এখন আবার স্কুলের পাশে মুক্তা নামে এক লোক আরেকটা ইটভাটা দিতেছে। তাহলে আমাদের আরো কষ্ট হবে। আমরা কিভাবে বাঁচবো।…আপনি আমাদের বাঁচান। ইতি-
মায়িশা মনাওয়রা মিশু, দ্বিতীয় শ্রেণি, রোল-২’ এবং নিচে তার বাবার নাম্বার যুক্ত করে দেয়।
বড়রা যা করতে পারেনি ৭ বছরের একটি শিশু এমন কাজ করায় স্থানীয়সহ বিদ্যালয়ের সকলে বেশ আনন্দিত।
শিশুটির চিঠি পেয়ে পরিবেশ অধিদপ্তর রংপুর কার্যালয় থেকে একটি দল ইটভাটাগুলো পরিদর্শনে আসে। জেলায় যতগুলো অবৈধ ইটের ভাটা আছে খুব তাড়াতাড়ি অভিযান চালিয়ে তা বন্ধের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানালেন পরিবেশ অধিদপ্তর রংপুর বিভাগীয় কার্যালয় পরিচালক আবুল কালাম আজাদ।

দিনাজপুরের ১৩ উপজেলায় সরকারী ছাড়পত্র ছাড়াই অনুমোদনহীন শতাধিক ইটভাটা রয়েছে। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: সৃষ্টি বার্তা থেকে কপি করা যাবে না।
0 Shares
Share via
Copy link
Powered by Social Snap