ads
মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ০৯:৩০ অপরাহ্ন

ঘূর্ণিঝড় ফণী; বাগেরহাটে বেড়িবাঁধ ভেঙে লোকালয় প্লাবিত

রিপোর্টারের নাম
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ৩ মে, ২০১৯
  • ১ বার পঠিত

ঘূর্ণিঝড় ফণী’র প্রভাবে বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার বেড়িবাঁধ ভেঙে লোকালয় প্লাবিত হয়েছে। শুক্রবার (৩ মে) সকাল থেকে বলেশ্বর নদীর পানি বৃদ্ধি ও স্রোতের চাপে উপজেলার পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) ৩৫/১ বোল্ডারের বেড়িবাঁধ ভেঙে বগী, সাতঘর এলাকার লোকালয়ে পানি ঢুকে ঘরবাড়ি প্লাবিত হয়েছে।

অনেকেই ঘরবাড়ি ছেড়ে সন্তান-সন্ততি ও মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে পার্শ্ববর্তী এলাকায় অবস্থান নিয়েছেন। পরিস্থিতির অবনতি হলে আশ্রয়কেন্দ্রে যাওয়ারও প্রস্তুতি রয়েছে তাদের।
বগী গ্রামের রাজ্জাক তালুকদার বলেন, সিডরে মরেছে আত্মীয় স্বজন। ফণীর কথা শুনেই আতঙ্কে আছি। আজ সকালে বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে লোকলয়ে পানি ঢুকেছে। খুব বিপদে আছি।
আবুল হাশেম বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় অবস্থান করছি। বেড়িবাঁধ ভেঙে আমার বাড়িতে পানি ঢুকে পড়েছে। কি হবে জানি না। সন্তানদের আত্মীয় বাড়িতে পাঠিয়েছি।
স্থানীয় ইউপি সদস্য রিয়াদুল হোসেন পঞ্চায়েত বলেন, আগে থেকেই ঝুঁকিপূর্ণ বেড়িবাঁধ সকালে জোয়ারের পানির চাপে ভেঙে লোকালয়ে ঢুকে পড়েছে। বেশ কিছু ঘরবাড়ি প্লাবিত হয়েছে। পানির চাপ বৃদ্ধি পেলে আরও কয়েকটি এলাকা প্লাবিত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। ইতোমধ্যে বেড়িবাঁধের আশপাশের মানুষ ঘর ছেড়ে অন্যত্র অবস্থান নিতে শুরু করেছে। আমরা এর আগেও দাবি জানিয়েছিলাম মজবুত করে বেড়িবাঁধ দেয়ার জন্য, কর্তৃপক্ষের খামখেয়ালিতে অসহায় মানুষদের ভোগান্তি হচ্ছে।
সাউথখালি ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান বলেন, বগী এলাকার বেড়িবাঁধের একটি অংশ ভেঙে নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। লোকালয়ে পানি ঢুকছে। সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী আশ্রয়কেন্দ্র ও স্বেচ্ছাসেবকরা প্রস্তুত রয়েছে।
বাগেরহাট পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী নাহিদুজ্জামান খান বলেন, বেড়িবাঁধ ভাঙার খবর শুনেছি। আমরা খোঁজ নিচ্ছি। প্রকল্পের লোকদের সাথে যোগাযোগ করে চেষ্টা করছি দ্রুত মেরামত করার।

সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর

Prayer Time Table

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৩:৪৭
  • ১২:০৪
  • ১৬:৪১
  • ১৮:৫৩
  • ২০:২০
  • ৫:১২
ইঞ্জিনিয়ার মোঃ ওয়ালি উল্লাহ
নির্বাহী সম্পাদক
নিউজ রুম :০২-৯০৩১৬৯৮
মোবাইল: 01727535354, 01758-353660
ই-মেইল: editor@sristybarta.com
© Copyright 2023 - SristyBarta.com
Develop By : BDiTZone.com
themesba-lates1749691102