আজ-  ,
basic-bank
সংবাদ শিরোনাম :

এবার ফেনীতে বিয়ের প্রলোভনে তরুণীকে একাধিকবার ধর্ষণ

বিয়ের প্রলোভন দিয়ে এক তরুণীকে ধর্ষণ করেছে এক যুবক। তার নাম জামশেদ আলম নিশান (১৮)।

তিনি ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলার শুভপুর ইউনিয়নের উত্তর বল্লভপুর গ্রামের মাক্কু মিয়ার ছেলে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে ওই তরুণীর পরিবারের পক্ষ থেকে ছাগলনাইয়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বুধবার দুপুরে ফেনীর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম তানিয়া ইসলামের আদালতে ওই তরুণী ২২ ধারায় জবানবন্দি প্রদান করে ঘটনার বর্ণনা দেয়।

পুলিশ জানায়, প্রতিবেশী হওয়ায় সুবাদে যুবক জামশেদ আলম নিশানের সাথে ওই তরুণীর আলাপ পরিচয় ছিল। এক পর্যায়ে দুজনের মধ্যে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। জামশেদ আলম নিশান ওই তরুণীকে বিয়ের প্রস্তাব দেন।

ধীরে ধীরে সম্পর্ক আরও ঘনিষ্ঠ হলে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে বেশ কয়েকবার ধর্ষণ করে। পরে ওই তরুণী বিয়ের জন্য চাপ দিলে তিনি বিয়ে করতে অস্বীকার করেন। বিষয়টি ওই তরুণী তার পরিবারকে জানায়। শেষে ঘটনাটি এলাকাবাসীকে জানানো হয়।

মঙ্গলবার বিকেলে এ নিয়ে এলাকায় সালিশ বৈঠক বসে।

বৈঠকে জামশেদ আলম নিশান ও তার পরিবার অভিযোগ অস্বীকার করেন এবং তরুণীর পরিবারের সদস্যদের ওপর হামলা ও মারধর করেন।
রাতেই ধর্ষণ ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে তরুণীর বাবা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ছাগলনাইয়া থানায় মামলা দায়ের করা হয়। মামলা দায়েরের পর থেকে আসামি জামশেদ আলম নিশান পলাতক রয়েছেন।

ছাগলনাইয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম. এম মোর্শেদ বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের ও ওই তরুণীর ২২ধারায় আদালতে জবানবন্দি প্রদানের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।