বিএনপি কার্যালয় ঘেরাও ছাত্রদলের

কাউন্সিলের তফসিল বাতিল ও আন্দোলনকারীদের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় ঘেরাও করে অবরুদ্ধ করে রেখেছে ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা। কার্যালয় থেকে কাউকে বের হতে বা কাউকে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। তাঁরা বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের বিদ্যুৎ–সংযোগ বন্ধ করে দিয়ে নয়াপল্টনে অবস্থান নিয়েছেন।

ছাত্রদলের বিলুপ্ত কমিটির সাবেক নেতাদের নেতৃত্বে বিক্ষুব্ধরা আজ সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের মূল ফটকের সামনে অবস্থান নেন।

ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধ নেতা-কর্মীরা দুপুর পৌনে ১২টার দিকে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের বিদ্যুৎ–সংযোগ বন্ধ করে দেন। তাঁরা কাউকে কার্যালয়ের ভেতরে ঢুকতে দিচ্ছেন না।

বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন কার্যালয়ে ঢুকতে চাইলে তাঁকে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। এ ছাড়া ছাত্রদলের পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ইউনিটের এক নেতা কার্যালয়ে ঢুকতে চাইলে তাঁকে মারধর করা হয়।

বয়সসীমা নির্ধারণ না করে ধারাবাহিক কমিটি গঠনের দাবিতে চলমান কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজও নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়েছেন তারা। আগামী ১৫ জুলাই ছাত্রদলের কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবার কথা রয়েছে।

এর আগে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে কমিটির পক্ষে ছাত্রদল নেতাকর্মীরা অবস্থান নেয়। পরবর্তীতে দুপুর পৌনে ১২টার দিকে বিক্ষুব্ধ কর্মীরা মিছিল সহকারে নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে তাদের সামনে আসলে কমিটির পক্ষের নেতাকর্মীরা কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের ভেতরে চলে যায়। তারপর থেকেই ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা তাদের অবস্থান কর্মসূচি শুরু করে।

আগামী ১৫ জুলাই ছাত্রদলের কাউন্সিলের জন্য ভোট গ্রহণের যে তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে তা বাতিলের দাবি জানিয়েছেন তারা। একই সঙ্গে আন্দোলনকারীদের যাদের বহিষ্কার করা হয়েছে অবিলম্বে তাদের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

0 Shares
Share via
Copy link
Powered by Social Snap