আজ-  ,
basic-bank
সংবাদ শিরোনাম :

প্রেমের টানে ভারতীয় তরুণী ফুলবাড়িতে

এজি লাভলু, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: প্রেম মানেনা বাঁধা। আর যাবতীয় বাঁধা পেরিয়ে প্রেমের টানে রোজিনা খাতুন (১৬) নামের ভারতীয় এক কিশোরী এসেছিল কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলায়। গত শনিবার দুপুরে ওই কিশোরীকে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) হাতে তুলে দিয়েছে বিজিবি।

বিজিবি সূত্রে জানা যায়, রোজিনা খাতুনের বাড়ি ভারতের কোচবিহার জেলার দিনহাটা থানার খারিদা হরিদাস গ্রামে। তার বাবার নাম আনু মিয়া। গত শুক্রবার রাত ১১টার দিকে রোজিনা খাতুন ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত পেরিয়ে ফুলবাড়ীর গোড়কমন্ডল গ্রামের মাহালম মিয়ার ছেলে জাহিদ হাসানের (২০) কাছে চলে আসে। রোজিনার পরিবার বিষয়টি বুঝতে পেয়ে খারিদা হরিদাস ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যদের জানায়। পরে তারা কিশোরীকে উদ্ধারের জন্য আজ সকালে গোরকমন্ডল ক্যাম্পের বিজিবি সদস্যদের কাছে পত্র পাঠায়।

বিজিবির তৎপরতায় জাহিদের পরিবার কিশোরীকে লালমনিরহাট জেলার কুলাহাট বাজার থেকে উদ্ধার করে। পরে আজ দুপুর দেড়টায় ওই সীমান্তের আন্তর্জাতিক মেইন পিলারের সাব পিলার ৪ এর শূন্য রেখায় বিজিবি-বিএসএফের মধ্যে পতাকা বৈঠক হয়। বৈঠকের মাধ্যমে কিশোরীর মা-বাবা ও আত্মীয়-স্বজনের উপস্থিতিতে বিএসএফের কাছে কিশোরীকে হস্তান্তর করা হয়।

এ সময় বৈঠকে লালমনিরহাট ১৫ বিজিবি’র অধীন শিমুলবাড়ী কোম্পানি কমান্ডার গোলাম মোহাম্মদ, গোরকমন্ডল ক্যাম্পের হাবিলদার মহাসিন কবির, ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেন, পারভীন বেগম এবং ভারতের ৩৮ ব্যাটালিয়ন খারিদা হরিদাস ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার অশোক কুমার উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে লালমনিরহাট ১৫ ব্যাটালিয়নের অধীন শিমুলবাড়ী ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার গোলাম মোহাম্মদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।