ভুরুঙ্গামারীর বন্ধুর মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে সেই লম্পট মকবুল গ্রেফতার

এজি লাভলু, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের ভূরুগামারী উপজেলার কচাকাটা থানা এলাকার বলদিয়া ইউনিয়নের পূর্বকেদার গ্রামে ধর্ষণের অভিযোগে মকবুল হোসেন নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গতকাল সোমবার দুপুরে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপারের (ভুরুঙ্গামারী সার্কেল) নেতৃত্বে ভুরুঙ্গামারী থানা পুলিশের একটি দল উপজেলা সাবরেজিস্ট্রার অফিসের সামনে থেকে তাকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতার মকবুল হোসেন বলদিয়া ইউনিয়নের পূর্বকেদার গ্রামের আব্দুল কুদ্দুস প্রধানের ছেলে।

নির্যাতিত মেয়েটি জানায়, বাবার বন্ধু হওয়ায় মকবুল তাদের বাড়িতে যাতায়াত করতো। তাদের পরিবারও মকবুলের বাড়িতে যাতায়াত করত। সে যখন ব্যাপারীটারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পঞ্চম শ্রেণিতে পড়তো তখন মকবুল ও তার স্ত্রী মুক্তা বেগম তাকে নিয়ে নাগেশ্বরী উপজেলার সাপখাওয়া গ্রামে মুক্তার বাবার বাড়িতে বেড়াতে যান। সেখানে একটি ঘরে মকবুল ও মেয়েটিকে রেখে স্ত্রী মুক্তা বাইরে থেকে দরজা বন্ধ করে চলে যান। সে সময় তাকে প্রথম ধর্ষণ করে মকবুল। পরে সে কান্নাকাটি করলে কুড়িগ্রাম নিয়ে গিয়ে লোক দেখানো বিয়ে করে। তারপর থেকে প্রায়ই ডেকে তাকে ধর্ষণ করতেন মকবুল।

গত বুধবার সকালে তার বাড়ির মুঠোফোনে ফোন দিয়ে পার্শ্ববর্তী ভ্যানচালক শামছুলের বাড়িতে ডেকে নিয়ে আবারও ধর্ষণ করেন মকবুল। এ সময় মকবুলের স্ত্রী মুক্তা বেগম এসে তাদের আটক করে মেয়েটিকে মারধোর করেন। পরে লোকজন এসে মেয়েটিকে উদ্ধার করে।

সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার শওকত আলী বলেন, দুপুরে উপজেলা চত্বরের সাবরেজিস্ট্রার অফিসের সামনে থেকে মকবুলকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

0 Shares
Share via