নোয়াখালীতে এমবিবিএস ডাক্তার পরিচয়ে রোগী দেখতেন তিনি কিন্তু …

নোয়াখালীতে এমবিবিএস ডাক্তার পরিচয়ের প্রমাণ দিতে না পারায় মোহাম্মদ উল্যা মামুনকে (৪৮) জেলে পাঠানো হয়েছে। বুধবার বিকেলে নোয়াখালীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের ৪নং আমলি আদালতের বিচারক উজমা শোকরানা এ রায় রায় প্রদান করেন।

মামলার বাদীপক্ষের আইনজীবী ও জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আজিজুল হক বকশী ও খালেদ সাইফুদ্দিন কামরুল গণমাধ্যমকে জানান, সেনবাগের ছায়েদুল হক বাদী হয়ে আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলার প্রধান আসামি মোহাম্মদ উল্যা মামুন। তিনি আদালতে হাজির হয়ে নিজেকে এমবিবিএস ডাক্তার বলে পরিচয় দেন। এরই মধ্যে ওই আসামি সেনবাগে নিজ গ্রামে ভুয়া চিকিৎসা করতে গিয়ে অনেক রোগীর ক্ষতি করেন। এ সংক্রান্ত বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়। বিষয়টি আদালতের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে ৪নং আমলি আদালতের বিচারক উজমা শোকরানা মোহাম্মদ উল্যা মামুনকে দুপুর ১২টা থেকে বিকেল তিনটা পর্যন্ত এমবিবিএসের পক্ষে প্রয়োজনীয় প্রমাণাদি দেয়ার নির্দেশ দেন।

কিন্তুু তিনি নির্দিষ্ট সময়ে মধ্যে প্রমাণাদি দিতে ব্যর্থ হওয়ায় আদালত তাকে জেলে পাঠানোর নির্দেশ প্রদান করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

0 Shares
Share via