মেসির আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে কোপার ফাইনালে ব্রাজিল

বল দখলের লড়াইটা প্রায় সমান সমান হলেও দারুণ সব আক্রমণ করেছিল আর্জেন্টিনাই। দুই দুইবার তো বার পোস্টও কাঁপায় তারা। কিন্তু কাজের কাজটি করতে পারেনি। অন্যদিকে, স্বল্প সুযোগ পেলেও তার নিখুঁত ফিনিশিং দেয় ব্রাজিল। ফলে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর লড়াইয়ে আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে কোপা আমেরিকার ফাইনালে উঠেছে তারা।

বুধবার (৩ জুলাই) বাংলাদেশ সময় সকালে আসরের প্রথম সেমিফাইনালে বেলো হরিজন্তেতে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ২-০ গোলে জিতেছে ব্রাজিল। স্বাগতিকদের পক্ষে লক্ষ্যভেদ করেন গ্যাব্রিয়েল জেসুস ও রবার্তো ফিরমিনো।

সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নেওয়ায় জাতীয় দল আর্জেন্টিনার জার্সিতে লিওনেল মেসির শিরোপা জয়ের স্বপ্ন আরও একবার মুখ থুবড়ে পড়ল। আর ১২ বছর পর কোপা আমেরিকার ফাইনালে উঠল আটবারের চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল। চলতি আসরে পাঁচ ম্যাচ খেললেও এখন পর্যন্ত কোনো গোল হজম করেনি তারা।

এদিন বল দখলে ব্রাজিলের চেয়ে কিছুটা এগিয়ে ছিল আর্জেন্টিনা। শুরুতে এলোমেলো খেললেও গোলের সুযোগ তৈরি করা এবং গোলমুখে শটে নেওয়ায় ব্যাপক প্রাধান্য ছিল মেসিদেরই। আর্জেন্টিনার ১৪টি শটের বিপরীতে ব্রাজিল নেয় মাত্র চারটি শট। তবে কাজের কাজটা করেছে তিতের শিষ্যরাই। বল জালে জড়িয়েছে দুইবার।

খেলা মাঠে গড়ানোর পর পাওয়া প্রথম ভালো সুযোগটা কাজে লাগিয়ে এগিয়ে যায় ব্রাজিল। ১৯তম মিনিটে ডি-বক্সের ভেতরে লিভারপুল স্ট্রাইকার ফিরমিনোর পাস পেয়ে গোলপোস্টের খুব কাছ থেকে লক্ষ্যভেদ করেন জেসুস। এই গোল আর্জেন্টিনা শোধ করতে পারত ১০ মিনিট বাদেই। তবে বার্সা তারকা মেসির নেওয়া ফ্রি-কিকে সার্জিও আগুয়েরোর হেড ক্রসবারে লাগে।

বিরতির পর ৫৭তম মিনিটে আবারও ভাগ্যের ফেরে হতাশ হতে হয় আর্জেন্টিনাকে। ডি-বক্সের ভেতরে বাম দিক থেকে মেসির নেওয়া বাম পায়ের জোরালো শট পোস্টে বাধা পেয়ে ফিরে আসে।

এরপর ৭১তম মিনিটে ব্রাজিলের জয় নিশ্চিত হয়ে যায়। গোলটির কারিগর ম্যানচেস্টার সিটির স্ট্রাইকার জেসুস। পাল্টা আক্রমণে মাঝমাঠ থেকে বল নিয়ে ছোটার পথে আর্জেন্টিনার তিন ডিফেন্ডারকে পরাস্ত করেন তিনি। এরপর পাস দেন ফাঁকায় দাঁড়িয়ে থাকা ফিরমিনোকে। ব্যবধান দ্বিগুণ করতে ভুল করেননি তিনি।

পোর্তো অ্যালেগ্রেতে বাংলাদেশ সময় বৃহম্পতিবার (৪ জুলাই) সকালে দ্বিতীয় সেমিফাইনালে পেরুকে মোকাবেলা করবে গেল দুইবারের কোপা আমেরিকা চ্যাম্পিয়ন চিলি। এই ম্যাচের জয়ী দলের বিপক্ষে আগামী রবিবার রাতে রিও ডি জেনেইরোর মারাকানা স্টেডিয়ামে ফাইনাল ম্যাচ খেলতে নামবে ব্রাজিল।

তার আগের রাতে করিন্থিয়াস অ্যারেনায় খেলতে নামবে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৪ বারের কোপা চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা। তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে তারা মুখোমুখি হবে চিলি ও পেরুর মধ্যকার ম্যাচের পরাজিত দলের। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

0 Shares
Share via
Copy link
Powered by Social Snap