৩০ বছর পর নখ কাটতে গিয়ে কেঁদেই ফেললেন তরুণী

গোঁফ দিয়ে যায় চেনা! নাহ্! এক্ষেত্রে নখ দিয়ে যায় চেনা। তবে অচিরেই আর চেনা যাবে কি তাঁকে? তিনি আয়ানা উইলিয়ামস নামের তরুণী।

আয়ানা উইলিয়ামস গিনেস বুকে নিজের নাম তুলে ফেলেছিলেন কয়েকবছর আগেই। কেননা তিনি ছিলেন পৃথিবীর দীর্ঘতম নখের অধিকারিণী! ক্রমে সেই নখ আরও বেড়েছে। কিন্তু অবশেষে তিনি কেটেই ফেললেন ঐতিহাসিক সেই নখ।

২০১৭ সালে আয়ানা উইলিয়ামস -এর হাতের নখের দৈর্ঘ্য ছিল ১৯ ফুট। এই কয়েক বছরে তা বেড়ে হয়েছিল ২৪ ফুট। কিন্তু দীর্ঘতম সেই ফিঙ্গারনেইল তিনি আমেরিকার -এর টেক্সাস শহরের ট্রিনিটি ভিসতা ডার্মাটোলজি- তে অবশেষে কেটেই ফেললেন। এক ধরনের ইলেকট্রিক রোটারি টুল দিয়ে এই নখ কাটা হল। তিরিশ বছরে এই প্রথম নখ কাটতে গিয়ে রীতিমতো আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন আয়ানা। সেই ১৯৯০ সাল থেকে তিনি নখ রাখছেন।

নখ কেটে তিনি বলেছেন, নখ থাকুক বা না থাকুক, আমি রানিই থাকব! তাঁর নখ কাটার ভিডিওটি ভাইরালও হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *