সুন্দরগঞ্জে গৃহবধূ গণধর্ষণ, গ্রেফতার ১

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে গভীর রাতে এক গৃহবধূকে হাত-পা বেঁধে গণধর্ষণ মামলার আসামী ধর্ষক খোরশেদ আলমকে গ্রেফতার করেছেন পুলিশ।

গত সোমবার রাত সাড়ে ১২ টার দিকে উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের নির্মাণাধীন তিস্তা সেতু এলাকার পাশ থেকে কঞ্চিবাড়ী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মোখলেছুর রহমানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ধর্ষক খোরশেদ আলমকে গ্রেফতার করেন। ধর্ষক খোরশেদ আলম উপজেলার কালিরখামার গ্রামের আঃ জলিলের ছেলে। ধর্ষিত অসুস্থ্য গৃহবধূ গাইবান্ধা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

পুলিশ জানায়, গত রোববার দিবাগত রাত ৩ টার দিকে উপজেলার কালির খামার গ্রামের মৃত রফিকুল ইসলামের স্ত্রীকে ৬ জন মিলে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এসময় গৃহবধূ প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘর থেকে বের হলে ওৎ পেতে থাকা নরপশুর দল গৃহবধূর মুখ চেপে ধরে পাশের একটি বাঁশঝাড়ে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে অজ্ঞান অবস্থায় সেখানে ফেলে চম্পট দেয়।

সোমবার সকালে এলাকার লোকজন উলঙ্গ অবস্থায় গৃহবধূকে বাঁশঝাড়ে পড়ে থাকা অবস্থায় সেখান থেকে উদ্ধার করে গাইবান্ধা জেলা হাসপাতালে ভর্তি করে দেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গৃহবধূ ৬ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। এরপর রাতে পুলিশ ধর্ষক খোরশেদকে গ্রেফতার করেন। কঞ্চিবাড়ী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মোখলেছুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বাকী আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *