কুষ্টিয়ায় সাংবাদিক জামিল হত্যা পরিকল্পিত, দাবি পরিবারের

সাংবাদিক ইউনিয়ন কুষ্টিয়ার সাধারণ সম্পাদক ও নিউজ টোয়েন্টিফোর টেলিভিশনের কুষ্টিয়া প্রতিনিধি জামিল হাসান খান খোকনকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি করেছে তার পরিবার।

সোমবার (১৭ মে) বেলা ১১টায় কুষ্টিয়ার কোর্টপাড়ার হাসপাতাল মোড়স্থ নিজ বাসভবনে সংবাদ সম্মেলনে এমন দাবি করে অভিযুক্তদের গ্রেফতার দাবি করেন তারা।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন- জামিল হাসানের ভাই কুষ্টিয়া জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি নাফিজ আহমেদ খান টিটু, জামিল হাসানের স্ত্রী কামরুন্নাহার খান। এসময় জামিল হাসানের ছেলে জায়েদ হাসান খান, শিশু মেয়ে জামিয়া খান জারা।

সংবাদ সম্মেলনে জামিল হাসানের স্ত্রী কামরুন্নাহার খান বলেন, সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের বিচার চাই।

নাফিজ আহমেদ খান টিটু বলেন, ১২ মে সন্ধ্যায় টাকা পয়সার ভাগ বাটোয়ারাকে কেন্দ্র করে ও সংগঠনের পোস্ট দখল করতে পরিকল্পিতভাবে সভাপতি রাশেদুল ইসলাম বিপ্লবের বাসায় সেসহ যুগ্ম সম্পাদক মিলন উল্লাহ সহযোগীদের নিয়ে উত্তেজিত করে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। এতে জামিল অচেতন হয়ে ডিপ কোমায় চলে যায়। পরে ঢাকার নিউরো সাইন্স হাসপাতালে ১৪ মে দিনগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে মারা যায় সে। পরদিন টিটু রাশেদুল ইসলাম বিপ্লব, মিলন উল্লাহ, সালমান সাহরিয়ার রাজু ও রাকিবুল হাসানের নাম উল্লেখ করে আরও ১০-১২ জনকে আসামি করে মডেল থানায় হত্যার অভিযোগ করেন। পুলিশ ৭৪১ নম্বর সাধারণ ডায়েরি হিসেবে নথিভুক্ত করে তদন্ত শুরু করেছে।

কুষ্টিয়া সদর মডেল থানার ওসি শওকত কবির বলেন, এ বিষয়ে দ্রুত গতিতে তদন্ত চলছে, যদি অভিযোগ সত্যি হয় তবে জিডি মামলা হবে, আসামিদের আইনের আওতায় আনা হবে।

আরো পড়ুন