রক্ত দেখে দৌড়ে পালানো শিশুর মাথায় গুলি করে এএসআই

কুষ্টিয়ায় দিনদুপুরে স্ত্রী-ছেলেসহ তিনজনকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত এএসআই সৌমেন মিত্রকে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয়রা। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ভয়ে দৌড়ে পালাতে থাকা ছেলেশিশুটিরও মাথায় গুলি করা হয়।

রোববার দুপুর পৌনে ১২টার দিকে শহরের কাস্টম মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বেলা ১১টার দিকে তারা হঠাৎ গুলির শব্দ শুনতে পান। শহরের কাস্টমস মোড়ে তিনতলা একটি ভবনের সামনে এক নারী চার বছরের ছেলেশিশুকে নিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন। সেখানে একজন পুরুষও ছিলেন। হঠাৎ এক ব্যক্তি সবার সামনেই ওই নারীর মাথায় গুলি চালান।

জানা যায়, গুলি শব্দ ও রক্ত দেখে চারপাশে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এরপর পাশে থাকা পুরুষের মাথায়ও গুলি করেন ঘাতক। রক্ত দেখে দৌড়ে পালানো শিশুর মাথায় গুলি করা হয়, সঙ্গে সঙ্গেই ওই শিশু মারা যায়।

এরপর মার্কেটের ব্যবসায়ীরা ধাওয়া দিলে হামলাকারীকে একটি বাড়ির মধ্যে আটকে রাখে স্থানীয়রা। জানা যায়, অভিযুক্ত এএসআই সৌমেন মিত্র খুলনার ফুলতলা থানায় কর্মরত। তবে কী কারণে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে, সে বিষয়ে কিছু জানা যায়নি।

ঘটনায় অভিযুক্ত এএসআই সৌমেনকে ধরে পুলিশে সোপর্দ করেছেন স্থানীয়রা

নিহতরা হলেন- শাকিল, আসমা এবং আসমার সন্তান রবিন।

কুষ্টিয়া মডেল থানার ওসি সাব্বিরুল ইসলাম বলেন, ঘটনার পরই স্থানীয় জনতা অভিযুক্তকে আটকে করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। হত্যাকাণ্ডের কারণ জানা যায়নি। তদন্ত চলছে।

আরো পড়ুন