বাড়তি ভাড়া না পেয়ে যাত্রীর মাথা ফাটালেন হেলপার

বাদুরতলা বড় গ্যারেজ থেকে বহদ্দারহাট পুলিশ বক্স। প্রায় এক কিলোমিটারের এ দূরত্বে সাধারণ সময়ে ভাড়া পাঁচ টাকা। করোনা পরিস্থিতিতে সরকারি সিদ্ধান্ত মোতাবেক ৬০ শতাংশ বর্ধিত করলে সেই ভাড়া দাঁড়ায় আট টাকায়।\

কিন্তু যাত্রীর কাছে পুরো ১০ টাকাই চেয়ে বসেন বাসের হেলপার। আর যাত্রী দিতে অপারগতা জানালেই বাঁধে বিপত্তি। বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে মারধর করে ফাটিয়ে দেন যাত্রীর মাথা।

রোববার এ ঘটনার একটি ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়। পরে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ঘটনাটি শনিবার দুপুরে চট্টগ্রাম নগরের বহদ্দারহাট মোড় এলাকার।

ভিডিওতে দেখা যায়, গাড়ির দরজায় মাথায় হাত দিয়ে বসে আছেন এক ব্যক্তি। তার মাথা ফেটে ঝরছে রক্ত। আর গাড়ির হেলপারকে ধরার চেষ্টা করছেন অন্যান্য যাত্রীরা।

ঘটনাস্থলে থাকা একজন বলেন, বাদুরতলা বড় গ্যারেজ থেকে ওঠে বহদ্দারহাট পুলিশ বক্স এলাকায় নেমে যান ওই ব্যক্তি। সাধারণত এ দূরত্বের ভাড়া পাঁচ টাকা। কিন্তু বাসের হেলপার ১০ টাকা দাবি করেন। পরে ওই ব্যক্তি পাঁচ টাকা দিয়ে নেমে চলে যাওয়ার সময় পেছন থেকে গাড়ি পরিস্কার করার ব্রাশ দিয়ে তার মাথায় আঘাত করেন হেলপার।

তিনি আরো বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে ৫০ শতাংশ যাত্রী পরিবহনের কথা থাকলেও তা মানছেন না চালক-হেলপাররা। এছাড়া ৬০ শতাংশ বাড়তি নেয়ার কথা থাকলেও দাবি করছেন পুরো দ্বিগুণ ভাড়া। তাদের এ নৈরাজ্য দিন দিন বেড়েই চলেছে। এ বিষয়ে প্রশাসন কঠোর হস্তক্ষেপ না করলে এমন ঘটনা ঘটতেই থাকবে।

জানতে চাইলে বহদ্দারহাট পুলিশ বক্সে দায়িত্বরত এসআই অধীর চৌধুরী বলেন, এ ধরনের ঘটনা আমাদের নজরে আসেনি। অভিযোগ পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরো পড়ুন