৪ ঘণ্টা ১৫ মিনিটের শ্বাসরুদ্ধকর জবানবন্দি এএসআই সৌমেনের

কুষ্টিয়ায় আলোচিত ট্রিপল মার্ডার মামলায় আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন বরখাস্ত হওয়া এএসআই সৌমেন কুমার রায়। নিজের দায় স্বীকার করে তিনি ৪ ঘণ্টা ১৫ মিনিটের শ্বাসরুদ্ধকর জবানবন্দি দিয়েছেন বলে আদালত সূত্রে জানা গেছে।

সোমবার বিকেলে কুষ্টিয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. এনামুল হকের আদালতে এ জবানবন্দি দেন সৌমেন।

দুপুর ১টা ৫ মিনিটের দিকে মামলার তদন্ত কর্মকর্তার নেতৃত্বে সৌমেনকে আদালত প্রাঙ্গণে আনে পুলিশের একটি বহর। এরপর ১টা ১০ মিনিটে তাকে আদালতে হাজির করা হয়। পরে বিকেল ৪টা ২৫ মিনিট পর্যন্ত তার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি নেন বিচারক। জবানবন্দি নেয়া শেষে ৪টা ৩০ মিনিটে সৌমেনকে কারাগারে পাঠানো হয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কুষ্টিয়া মডেল থানার ওসি (তদন্ত) নিশিকান্ত সরকার বলেন, রোববার সৌমেনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন নিহত আসমা খাতুনের মা হাসিনা খাতুন। সোমবার দুপুরে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে সৌমেনকে আদালতে তোলা হয়। কিন্তু রিমান্ড নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয় আদালত।

এদিকে রোববার বিকেলে এএসআই সৌমেন রায়কে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এ ঘটনায় খুলনা রেঞ্জ থেকে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। খুলনা রেঞ্জের দুজন পুলিশ কর্মকর্তাসহ কুষ্টিয়ায় এক পুলিশ কর্মকর্তাকে তদন্ত কমিটির সদস্য হিসেবে রাখা হয়েছে।

রোববার পরকীয়ার জেরে কুষ্টিয়া শহরে প্রকাশ্যে সাবেক স্ত্রী-ছেলেসহ স্ত্রীর ছেলে বন্ধুকে গুলি করে হত্যা করেন সৌমেন। এ ঘটনায় স্থানীয়দের সহায়তায় সৌমেনকে অস্ত্র-গুলি, ম্যাগজিনসহ আটক করে পুলিশ।

আরো পড়ুন