খুলনা বিভাগে বেড়েছে শনাক্ত, মৃত্যু ১২

খুলনা বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা কমলেও বেড়েছে শনাক্তের সংখ্যা। একদিনে বিভাগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

একই সময়ে ৯৪৫ জনের শরীরে করোনার উপস্থিতি পাওয়া গেছে।
সোমবার (২১ জুন) দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক রাশেদা সুলতানা।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের দফতর সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনায় তিনজন, কুষ্টিয়ায় তিনজন, ঝিনাইদহে দুইজন ও চুয়াডাঙ্গায়, যশোরে, বাগেরহাটে এবং নড়াইলে একজন করে মোট চারজন মারা গেছেন।

এর আগে রোববার (২০ জুন) আগের ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে সর্বোচ্চ ২৮ জনের মৃত্যু এবং ৭৬৩ জনের করোনা শনাক্তের কথা জানানো হয়েছিল। তার আগে শনিবার (১৯ জুন) ২২ জনের মৃত্যু এবং ৬২৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছিল। সেই তুলনায় সোমবার (২১ জুন) কমেছে করোনায় মৃতের সংখ্যা। বেড়েছে শনাক্তের সংখ্যা।

খুলনা বিভাগের মধ্যে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় চুয়াডাঙ্গায়, গত বছরের ১৯ মার্চ। করোনা সংক্রমণের শুরু থেকে সোমবার সকাল পর্যন্ত বিভাগের ১০ জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ৪৫ হাজার ৯৭৭ জন, মারা গেছেন ৮৩৭ জন। এ সময় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩৪ হাজার ৬২৭ জন।

খুলনা বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু, আক্রান্ত ও সুস্থ:
বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের জেলাভিত্তিক করোনা সংক্রান্ত তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, খুলনায় গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছে ১৭৫ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ১২ হাজার ৯৯৬ জন। মারা গেছে ২১১ জন এবং সুস্থ হয়েছে ১০ হাজার ৫৪ জন।

বাগেরহাটে শনাক্ত হয়েছে ৮৬ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ২ হাজার ৬৩৬ জন। মারা গেছে ৬৬ জন এবং সুস্থ হয়েছে ১ হাজার ৮৩৯ জন।

সাতক্ষীরায় শনাক্ত হয়েছে ৫০ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ২ হাজার ৯১৬ জন এবং মারা গেছে ৬২ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ২ হাজার ২৭ জন।

যশোরে গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছে ৩০৫ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ৯ হাজার ৭৮৫ জন। মারা গেছে ১০৯ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৬ হাজার ৭৪৮ জন।

নড়াইলে শনাক্ত হয়েছে ৩৮ জন। মোট শনাক্ত হয়েছে ২ হাজার ৩১০ জন, মারা গেছে ৩২ জন এবং সুস্থ হয়েছে ১ হাজার ৮৪৭ জন।

মাগুরায় শনাক্ত হয়েছে ২০ জন। মোট শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ৪০৫ জন, মারা গেছেন ২৫ জন এবং সুস্থ হয়েছে ১ হাজার ২২৩ জন।

ঝিনাইদহে শনাক্ত হয়েছে ৯৫ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ৩ হাজার ৪৯১ জন, মারা গেছে ৬৮ জন এবং সুস্থ হয়েছে ২ হাজার ৮৯০ জন।

কুষ্টিয়ায় শনাক্ত হয়েছে ৮৩ জন। মোট শনাক্ত হয়েছে ৬ হাজার ৪২১ জন, মারা গেছে ১৫৭ জন এবং সুস্থ হয়েছে ৫ হাজার ৪৯ জন।

চুয়াডাঙ্গায় শনাক্ত হয়েছে ৫৯ জন। মোট শনাক্ত হয়েছে ২ হাজার ৬৫০ জন, মারা গেছে ৭৪ জন এবং সুস্থ হয়েছে ১ হাজার ৯৭৯ জন।

মেহেরপুরে শনাক্ত হয়েছে ৩৪ জন। জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ৩৬৭ জন, মারা গেছে ৩৩ জন এবং সুস্থ হয়েছে ৯৭১ জন।

আরো পড়ুন