জুডোকার গালে কোচের চড়, তোলপাড় সামাজিক মাধ্যম

জার্মান জুডোকা মার্টিনা ট্রাইডোসকে চড় বসিয়ে দিলেন তার কোচ। এ ঘটনা খেলা শুরুর আগে। তার দুই গালে চড় বসিয়ে দেয়ার এ দৃশ্য দেখে অবাক হয়েছেন অনেকেই। তবে খোদ মার্টিনা ট্রাইডোস নিজেই বললেন, ‘আমার ভিতরের নৈপুণ্য জাগিয়ে তুলতে এটার ভীষণ দরকার ছিল। ঘটনাটি আমার ইচ্ছাতেই ঘটেছে।’

টোকিও অলিম্পিকে মঙ্গলবার অলিম্পিক জুডোর ৬৩ কেজির ৩২তম রাউন্ডে হাঙ্গেরির সোফি ওজবাসের মুখোমুখি হন মার্টিনা ট্রাইডোস। ট্রাইডোস যখন ম্যাটের দিকে এগিয়ে যাচ্ছিলেন তখন তার কোচ ক্লাউদিউ পুসা তাকে থামিয়ে দুহাতে কলার চেপে সজোরে ঝাঁকুনি দেন। এরপরই তার দুই গালে চড় বসিয়ে দেন কোচ। এর পর ম্যাটের দিকে এগিয়ে যান ২০১৫-এর ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন মার্টিনা। কিন্তু লড়াইয়ে হাঙ্গেরিয়ান তারকা ওজবাসের কাছে হেরে যান ৩২ বছর বয়সী এ জার্মান জুডোকা।

২০১৯ বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের ব্রোঞ্জ জয়ী তারকার বিদায়ে কোচের চড়ের ঘটনা তোলপাড় হয়ে ওঠে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোয়।

এরপরই ট্রাইডোস ইন্সটাগ্রাম বার্তায় জানান, তিনি নিজেই কোচকে বলেছিলেন তাকে এমন চড় লাগাতে। তিনি লিখেন- ‘আমাকে নিয়ে অন্য শিরোনামই দেখতে চেয়েছিলাম আমি। আমি আগেই বলেছি লড়াই শুরুর আগের ঘটনাটি আমার কারণেই ঘটেছে। আমাকে তাতিয়ে তুলতে কোচকে এটা করতে বলেছিলাম আমি নিজেই। দয়া করে আমার কোচকে কেউ দোষ দেবেন না।’

লড়াই শুরুর আগে নিজেকে জাগিয়ে তুলতে এমন কিছুর দরকার ছিল আমার। টোকিও অলিম্পিকে জুডোর এই ইভেন্টের ব্রোঞ্জ জয়ী ইতালিয়ান তারকা মারিয়া সেনট্রাকিওর কাছে পরের রাউন্ডে হেরে যান ওজবাস। ফ্রান্সের ক্লারিস আগবেনিনু স্বর্ণ ও স্লোভেনিয়ার টিনা ট্রাসটেনিয়াক জেতেন রুপা।

আরো পড়ুন