নোয়াখালীতে গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার, স্বামী আটক

নোয়াখালী বেগমগঞ্জে জান্নাতুল ফেরদৌসি রুপা (২৫) নামে চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় নিহত গৃহবধূর স্বামী সালাউদ্দিন সোহেলকে (৩৫) আটক করা হয়েছে। নিহত গৃহবধূ সোনাইমুড়ী উপজেলার বজরা গ্রামের মো. ওয়াহিদুলের মেয়ে।

আজ বৃহস্পতিবার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে।

এর আগে গতকাল বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার নরোত্তমপুর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের জমীস উদ্দিনের নতুন বাড়ি থেকে এ মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহত গৃহবধূর স্বামীকে আটক করেছে পুলিশ। তিনি উপজেলার নরোত্তমপুর ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের পাটোয়ারী বাড়ির মৃত আবুল হাশেমের ছেলে।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, গতকাল বুধবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে ৩ সন্তানের জননী বর্তমানে ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা রুপা পরিবারের সদস্যদের অগোচরে বসত ঘরের আড়ার সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। তবে নিহতের স্বজনদের অভিযোগ পারিবারিক কলহের জের ধরে রুপাকে তার স্বামী হত্যা করে ঘরের আড়ার সাথে ঝুলিয়ে রাখে। পরে খবর পেয়ে বেগমগঞ্জ থানার পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় আনে। একই সাথে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্বামী সোহেলকে আটক করা হয়।

বেগমগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. রুহুল আমিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আরো পড়ুন