২ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স এলো জুলাইয়ে

২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রথম মাসে রেমিট্যান্স প্রবাহ ব্যাপক বেড়েছে। গতকাল রোববার শেষ হওয়া জুলাই মাসে প্রায় ২ দশমিক ২ বিলিয়ন বা ২২০ কোটি ডলার প্রবাসী আয় দেশে এসেছে। সোমবার (১ আগস্ট) বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম চ্যানেল২৪ অনলাইনকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, চলতি বছর রেমিট্যান্সের ওপর প্রণোদনা বাড়িয়েছে সরকার। সেই সঙ্গে এ খাতে বিভিন্ন সহায়তা দেয়া হচ্ছে। প্রবাসীদের বৈধ পথে অর্থ পাঠাতে উৎসাহ দিচ্ছে বাংলাদেশ ব্যাংকও। এতে আগের চেয়ে এখন বেশি দর পাচ্ছেন তারা। ফলে সদ্য সমাপ্ত জুলাই মাসে ২ দশমিক ২ বিলিয়ন রেমিট্যান্স এসেছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের হালনাগাদ তথ্যে জানা গেছে, গত বছরের জুলাইয়ে ব্যাংকিং চ্যানেলে দেশে এসেছিল ১ দশমিক ৮৭ বিলিয়ন ডলার। এবার তা এসেছে ২ দশমিক ২ বিলিয়ন ডলার। ২০২১-২২ অর্থবছরের সবশেষ মাস জুনে প্রবাসী আয় এসেছে ১ দশমিক ৮৩ বিলিয়ন ডলার।

সেই হিসাবে নতুন অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইয়ে তা বেড়েছে ১৯ দশমিক ৭৫ শতাংশে বেশি। তবে আলোচিত মাস ২০২০ সালের জুলাইকে ছাড়িয়ে যেতে পারেনি। ওই সময় রেমিট্যান্স আসে ২ দশমিক ৫৯ বিলিয়ন ডলার।

গত অর্থবছরে রেমিট্যান্স প্রবাহ ২০২০-২১ অর্থবছরের তুলনায় বেশ কমে যায়। এ নিয়ে উৎকণ্ঠা তৈরি হয়। তবে ২০২২-২৩ অর্থবছরের আলোচ্য সময়ে প্রবাসী আয়ের ব্যাপক ঊর্ধ্বগতি হয়েছে। এতে দেশের অর্থনীতিতে উদ্ভূত চাপ অনেকাংশে কেটে যাবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে বিশ্বব্যাপী পণ্য আমদানি মূল্য ও পরিবহন ব্যয় বেড়ে যায়। যার প্রভাব পড়ে দেশের মুদ্রাবাজারে। এতে টাকার বিপরীতে ডলারের দাম ব্যাপক বৃদ্ধি পায়। ফলে দেশে প্রধান আন্তর্জাতিক মুদ্রা সরবরাহ সঙ্কট দেখা দেয়।

এ অবস্থায় ডলার সংগ্রহে বিদেশের এক্সচেঞ্জ হাউজ থেকে বেশি দরে এ বৈদেশিক মুদ্রা কিনছে ব্যাংকগুলো। মূলত এরই ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে রেমিট্যান্সে। বেড়েছে প্রবাসী আয়।

আরো পড়ুন