লুঙ্গি পরা বৃদ্ধকে টিকিট না দেওয়ার ঘটনায় যা বলল স্টার সিনেপ্লেক্স

বিদ্যা সিনহা মিম ও শরীফুল রাজ অভিনীত সিনেমা ‘পরাণ’ দেখতে সিনেপ্লেক্সে গিয়েছিলেন এক বৃদ্ধ।

কিন্তু তিনি লুঙ্গি পরে থাকায় তাকে টিকিট দেননি সিনেপ্লেক্সের টিকিট সেলার।

সেই ঘটনার একটি ভিডিও গতরাত থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। ‘পরাণ’র অভিনেত্রী মিমও সেই ভিডিও শেয়ার করেছেন।

এর পর থেকেই এ ঘটনার প্রতিবাদে মুখর নেটিজেনরা। তারা বলছেন, বাংলাদেশের অনেক জায়গায় লুঙ্গি পরে গেলে তাদের মূল্যায়ন হয় না— এ ঘটনা তার একটি প্রমাণ।

অনেকেই লিখেছেন— ভারতে তামিল, তেলেগু, মালায়লাম, কন্নড় রাজ্যে লুঙ্গি পরে অনেকেই সিনেমা দেখতে যান। ড্রেসকোডের দোহাই দিয়ে তো তাদের আটকানো হয় না। তবে বাংলাদেশে কেন?

কেউ কেউ চাচ্ছেন, এ ঘটনার প্রতিবাদে লুঙ্গি পরে সেই সিনেপ্লেক্সে যাবেন।

এমন সব প্রতিবাদের মধ্যে সেই ঘটনা নিয়ে বিবৃতি দিয়েছে সনি স্টার সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ। ঘটনাটিকে দুর্ভাগ্যজনক ভুল বোঝাবুঝির ফল হিসেবে জানিয়েছেন তারা। দুঃখ প্রকাশ করে সেই বৃদ্ধকে সিনেমা দেখার আমন্ত্রণও জানিয়েছেন তারা।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার পর নিজেদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে এ সংক্রান্ত একটি স্ট্যাটাস দিয়েছে সনি স্টার সিনেপ্লেক্স।

সেখানে তারা লিখেছে, ‘স্টার সিনেপ্লেক্স পরিবারের পক্ষ থেকে আমরা জানাতে চাই— আমরা গ্রাহকদের সঙ্গে কোনো কিছুর ওপর ভিত্তি করে বৈষম্য করি না। আমাদের সংস্থায় এমন কোনো নিয়ম বা নীতি নেই যা একজন ব্যক্তিকে লুঙ্গি পরার কারণে টিকিট কেনার অধিকারকে অস্বীকার করবে। আমরা জানাতে চাই— আমাদের সিনেমা হলে সবাই নিজেদের পছন্দের সিনেমা দেখার জন্য সবসময় স্বাগতম। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রচারিত ঘটনাটি সম্ভবত একটি দুর্ভাগ্যজনক ভুল বোঝাবুঝির ফল। আমরা এ ঘটনাটি ঘটতে দেখে গভীরভাবে দুঃখিত এবং আমাদের নজরে আনার জন্য সংশ্লিষ্ট পক্ষের প্রতি কৃতজ্ঞ। আমরা স্টার সিনেপ্লেক্স পরিবার, আমাদের গ্রাহকদের সেরা সিনেমাটিক অভিজ্ঞতা দিতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এবং আমরা এই ভদ্রলোককে তার পরিবারের সঙ্গে আমাদের সনি স্কয়ার শাখায় ‘পরাণ’ দেখার জন্য আন্তরিকভাবে আমন্ত্রণ জানাই। এ ছাড়া আমরা এ ঘটনাটি তদন্ত করছি যেন ভবিষ্যতে এ ধরনের ভুল বোঝাবুঝি না হয়। আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের সবাইকে ধন্যবাদ।’

 

 

আরো পড়ুন