হাসপাতাল থেকে নবজাতক চুরি

বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতাল থেকে চারদিন বয়সী এক শিশু চুরি হয়েছে। বুধবার দুপুরে সমাজসেবা অধিদপ্তর থেকে সহযোগিতা দেওয়ার নামে অজ্ঞাত এক নারী গাইনি বিভাগ থেকে শিশুটি চুরে করে নিয়ে যায়।

সদর থানার ওসি নূরে আলম সিদ্দিকী জানান, বিকাল পর্যন্ত শিশুটিকে উদ্ধার ও জড়িতদের গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।

হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. আবদুল ওয়াদুদ জানান, গাইনি বিভাগ থেকে নয়; ছাড়পত্র দেওয়ার পর বহির্বিভাগ থেকে নবজাতক চুরি হয়েছে। বিষয়টি পুলিশ খতিয়ে দেখছে।

পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্র জানায়, বগুড়া সদরের এরুলিয়া বানদীঘি গ্রামের সৈকত হাসানের অন্ত:সত্ত্বা স্ত্রী ইতিকে (২৩) গত ৫ নভেম্বর বগুড়া শজিমেক হাসপাতালের গাইনি বিভাগে ভর্তি করা হয়। পরদিন সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে তিনি ছেলে সন্তান প্রসব করেন।

শিশুটির নানি সালেহা বেগম জানান, বুধবার দুপুরে তার মেয়ে ইতি ও রোজিনা বাচ্চাকে নিয়ে গাইনি ওয়ার্ডে বসেছিলেন। এ সময় অজ্ঞাত পরিচয় এক নারী সেখানে আসেন। তিনি সমাজসেবা অধিদপ্তরের মাধ্যমে ৫ হাজার টাকা সহায়তা দেওয়ার আশ্বাস দেন। এরপর খালা রোজিনা বাচ্চাকে নিয়ে হাসপাতালের নিচতলায় বহির্বিভাগে আসেন। ওই নারী বাচ্চাকে কোলে নেন ও খালা রোজিনাকে কিছু কাগজ ফটোকপি করার জন্য বাইরে পাঠান। রোজিনা ফটোকপি করতে হাসপাতালের বাহিরে গেলে ওই নারী বাচ্চা নিয়ে পালিয়ে যান। সালেহা বেগম তার নবজাতক নাতিকে ফিরে পেতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

বগুড়া সদর থানার ওসি নূরে আলম সিদ্দিকী জানান, হাসপাতাল থেকে বাচ্চা চুরির ঘটনায় বিকাল পর্যন্ত মামলা হয়নি। শিশুটিকে উদ্ধারে পুলিশের একাধিক টিম কাজ করছে।

আরো পড়ুন