যেভাবে বাবা রাজীব গান্ধীর ‘খুনি’ নলিনীর শ্রদ্ধার পাত্র হলেন ‘দেবদূত’ প্রিয়াংকা

নলিনী শ্রীহরন, ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধী হত্যা মামলায় সাজাপ্রাপ্তদের একজন। যাবজ্জীবন সাজা ভোগের পর সম্প্রতি তিনি মুক্তি পেয়েছেন। এনডিটিভিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে নলিনী দাবি করেছেন, তিনি রাজীব হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত ছিলেন না। তিনি এ বিষয়ে নাকি কিছু জানতেনও না।

নলিনীর দাবি, হত্যাকাণ্ডে জড়িতরা তার স্বামীর বন্ধু। সেই সূত্রেই তাদের সাথে চেনাজানা ছিল তার, তার বাড়িতে রাজীব হত্যায় জড়িতদের যাতায়াত ছিল। আর সেই পরিচয়ের কারণেই তাকে রাজীব হত্যা মামলার আসামি করা হয়েছে। সেখান থেকে তাকে সাত বার ফাঁসির আদেশও দেওয়া হয় বলে দাবি করেন নলিনী।

কারাগারে রাজীব কন্যা প্রিয়াংকা গান্ধীর সাথে দেখা ও কথা হওয়ার স্মৃতি আওড়ে নলিনী বলেন, ‘তিনি খুব দয়ালু মানুষ। তিনি একজন দেবদূত। তিনি আমাকে তাকে শ্রদ্ধা করতে বাধ্য করেছেন।’
নলিনী প্রিয়াংকা সম্পর্কে আরও বলেন, ‘আমরা (প্রিয়াংকা) কারা কর্মকর্তাদের সামনে একসাথেও বসতে পারতাম না। দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে কথা বলতাম। যখন সে আমার সাথে দেখা করতে আসতো, আমাকে তার পাশে বসাতো। এটা আমার জন্য এক অন্যরকম অভিজ্ঞতা।’

নলিনীর কাছে প্রিয়াংকা বাবা রাজীবের হত্যার বিষয়ে জানতে চাইতেন। নলিনী বলেন, ‘তিনি আমার কাছে তার বাবার হত্যাকাণ্ড সম্পর্কে জানতে চাইতেন। তিনি আবেগি হয়ে পড়তেন। তিনি কাঁদতেন।’

সূত্র: এনডিটিভি

আরো পড়ুন