বিএনপির ১৬০ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে নাশকতার মামলা

পাবনার ঈশ্বরদীতে উপজেলা বিএনপি, যুবদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলের সাতজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ১৬০ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ।

ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি ও নাশকতা অপচেষ্টার অভিযোগে এ মামলা করা হয়। তবে এ ঘটনায় এখনো কেউ গ্রেফতার হয়নি।

বুধবার সন্ধ্যায় মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেন ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ অরবিন্দু সরকার। এর আগে মঙ্গলবার রাতে ঈশ্বরদী শহরের অদূরে আলহাজ টেক্সটাইল মিলস হাই স্কুল মাঠসংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে পুলিশ জানায়।

নাম উল্লেখ করা আসামিরা হলেন— উপজেলা বিএনপির সাবেক সদস্য সচিব হোসেন সুজন, দাশুড়িয়া ইউনিয়ন বিএনপি আহ্বায়ক আব্দুস সালাম সুলভ মালিথা, পৌর যুবদলের আহ্বায়ক জাকির হোসেন জুয়েল, সাবেক ছাত্রদল নেতা রফিকুল ইসলাম নয়ন, উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক সুলতান আলী বিশ্বাস টনি, মেহেদী হাসান ও উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক শরিফুল ইসলাম শরীফ।

মামলাকে ষড়যন্ত্র অ্যাখ্যা দিয়ে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক শরিফুল ইসলাম শরীফ বলেন, গতকাল ককটেল বিস্ফোরণের মতো কোনো ঘটনাই ঘটেনি। জনগণকে দেওয়ার মতো সরকারের কাছে আর কিছুই নেই। এ জন্য মামলা দিয়ে তাদের আটকে রাখা হচ্ছে।

তিনি দাবি করেন, আগামী ৩ ডিসেম্বর রাজশাহী বিভাগীয় গণসমাবেশ ও ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় মহাসমাবেশ বানচাল করতে এবং নেতাকর্মীদের হয়রানি করতে এ মামলা দেওয়া হয়েছে।

ঈশ্বরদী থানার ওসি অরবিন্দু সরকার জানান, ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি ও নাশকতার চেষ্টার ঘটনায় এ মামলা করা হয়েছে। আসামিদের ধরতে পুলিশের অভিযান চলমান রয়েছে।

আরো পড়ুন