পিরোজপুর জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক বহিষ্কার

পিরোজপুরে সাংগঠনিক শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক বদিউজ্জামান শেখ রুবেলকে বহিষ্কার করেছে কেন্দ্রীয় কমিটি।

শুক্রবার (২ জুন) রাতে ছাত্রদল কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর আলম সই করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে জানা যায়, ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সংসদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পিরোজপুর জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক বদিউজ্জামান শেখ রুবেলকে সাংগঠনিক শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। পাশাপাশি জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তানজিদ রশিদকে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২৩ মে জেলা বিএনপির কার্যালয়ের সামনে চায়ের দোকানে বদিউজ্জামান শেখ রুবেলের সঙ্গে জেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতি ইমরান আহম্মেদের কথাকাটাকাটি হয়। এর একপর্যায়ে বদিউজ্জামান পানির গ্লাস দিয়ে ইমরান আহম্মেদের মাথায় আঘাত করেন। এতে ইমরানের মাথা কেটে যায়।

পরদিন ইমরান আহম্মেদ ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের কাছে বদিউজ্জামান শেখ রুবেলের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেন। সেখানে ২০২২ সালের ২৭ জানুয়ারি বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে জেলা ছাত্রদলের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি তানজিদ হাসানকে বদিউজ্জামান শেখ রুবেলের মারধরের কথাও উল্লেখ করা হয়।

এছাড়া বদিউজ্জামানের বিরুদ্ধে পরিবারের সদস্যদের জেলা ছাত্রদলের কমিটিতে রাখার অভিযোগ করা হয়। বদিউজ্জামানের বিরুদ্ধে পদ-বাণিজ্য, দলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে অশোভন আচরণের অভিযোগ রয়েছে। তার বিরুদ্ধে ছাত্রদলের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় কেন্দ্রীয় কমিটি তাকে বহিষ্কার করেছে।

এ বিষয়ে বদিউজ্জামান শেখ রুবেল বলেন, আমাকে অসাংগঠনিকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক আমাকে কোনো কারণ দর্শানোর নোটিশ করেননি।

আরো পড়ুন