বাতাসে ভেসে থাকতে পারে কয়েক ঘণ্টা করোনাভাইরাস

প্রকাশিত: মার্চ ১৯, ২০২০

নতুন করোনাভাইরাস বাতাসে কয়েক ঘণ্টা ভেসে থাকতে পারে এবং ভূপৃষ্ঠে কয়েকদিন পর্যন্ত টিকে থেকে সংক্রমণ ঘটাতে পারে বলে নতুন এক গবেষণায় জানানো হয়েছে। বুধবার এ তথ্য উল্লেখ করে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স

গত ১০ মার্চ চীনের সংবাদমাধ্যম সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট একটি গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল। তাতে বলা হয়েছিল, নতুন করোনাভাইরাস বাতাসে ৩০ মিনিট ভেসে থাকতে পারে। গবেষণাটি করেছিল চীনের সরকারি এপিডেমিওলজিস্টের গবেষকরা।  এবারের এই নতুন গবেষণাটি করেছেন ইউএস ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব এলার্জি এ্যান্ড ইনফেকশন ডিজেজের (এনআইএআইডি) একদল চিকিৎসক। এজন্য তারা ভাইরাস নকল করতে আক্রান্ত ব্যক্তির কফ ও স্পর্শ করা জায়গা থেকে নমুনা সংগ্রহ করেন।

গবেষণায় তারা এমন ডিভাইস ব্যবহার করেছেন যা কাশি বা হাঁচিতে তৈরি মাইক্রোস্কোপিক ফোঁটাগুলো নকল করতে পারে।গবেষণায় দেখা গেছে, যখন কেউ কাশি বা হাঁচি দেয় তখন তাদের কফের মাধ্যমে ভাইরাস বের হয় এবং তা কার্যকরভাবে ছড়িয়ে পড়ে। এসময় বাতাসে এ ভাইরাস কমপক্ষে তিন ঘণ্টা ভেসে থাকতে পারে। গবেষকরা প্লাস্টিক এবং স্টেইনলেস স্টিলে করোনাভাইরাস তিন দিন পরেও সনাক্ত করতে পেরছেন। কিন্তু, কার্ডবোর্ডে এ ভাইরাস ২৪ ঘণ্টা পরে ভাইরাস কার্যকর ছিল না। তামার উপর এই ভাইরাস নিষ্ক্রিয় হতে ৪ ঘণ্টা সময় নেয়।

গবেষণা দলটি বলেছে, বাতাসে ভাইরাসের তিন চতুর্থাংশ কণা ধ্বংস হতে প্রায় ৬৬ মিনিটি সময় লাগে। অর্থাৎ এক ঘণ্টা ছয় মিনিটে ভাইরাসের তিন চতুর্থাংশ নিষ্ক্রিয় হয়ে গেলেও ২৫ শতাংশ কার্যকর থাকে। তারা বলছেন, স্টেইনলেস স্টিলের উপর ভাইরাসের অর্ধেক কণা নিষ্ক্রিয় হতে ৫ ঘণ্টা ৩৮ মিনিট সময় লাগে। প্লাস্টিকের উপরে এর অর্ধেক কণা নিষ্ক্রিয় হতে ৬ ঘণ্টা ৪৯ মিনিট সময় লাগে। আর তামার উপর ভাইরাসের অর্ধেক কণা নিষ্ক্রিয় হতে ৪৬ মিনিট সময় লাগে।