নকলায় করোনা সন্দেহে ৮ ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ, ৭ বাড়িতে লাল পতাকা!

অনলাইন ডেস্ক অনলাইন ডেস্ক

সৃষ্টিবার্তা ডটকম

প্রকাশিত: এপ্রিল ১৩, ২০২০

শেরপুর প্রতিনিধি: শেরপুরের নকলা উপজেলায় নভেল করোনা ভাইরাস (কভিট-১৯) সংক্রমণের আগাম সচেতনতা হিসেবে নারায়নগঞ্জসহ ঢাকার বিভিন্ন এলাকা থেকে নিজ বাড়িতে ফিরে আসা অন্তত ৮ ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে এমন ৮ ব্যক্তির ৭টি বাড়িতে লাল পতাকা টানিয়ে চিহিৃত করে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

১৩ এপ্রিল সোমবার দুপুরের দিকে এ সকল লোকের নমুনা সংগ্রহ করার পরে সতর্কতা স্বরূপ তাদের বাড়িতে লাল পতাকা টানিয়ে দেওয়া হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহিদুর রহমানের নেতৃত্বে এবং উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প কর্মকর্তা ডা. মো. মজিবুর রহমানের ত্বত্তাবধানে মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট আবু কাউসার সিদ্দিকী বিদ্যুত এসব নমুনা সংগ্রহ করেন।

যাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে তারা হলেন- গনপদ্দী ইউনিয়নের মেদীরপাড় এলাকার একই বাড়ির ২ জন ও অন্য ৪ বাড়ির একজন করে ৪ জন, গৌরদ্বার ইউনিয়নের রুনিগাঁও এলাকার একজন এবং পৌর সভার একজন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্যাথলজি বিভাগের তথ্য মতে, এপর্যন্ত উপজেলার ১৩ ব্যক্তির শরীরে করোনা ভাইরাসের উপসর্গ প্রকাশ পাওয়ায় সংক্রমণের সন্দেহে তাদের নমুনা সংগ্রহ করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছিলো।

সংগৃহীত ১৩টি নমুনা পরীক্ষার পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে প্রেরিত রিপোর্ট অনুযায়ী তাদের কারও শরীরে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়নি। এ সুসংবাদে নকলা উপজেলা বাসীদের মনে স্বস্থি ফিরে এসেছিলো। কিন্তু ১৩ এপ্রিল সোমবার হঠাৎ করেই উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে ৮ জনের নমুনা সংগ্রহ করার খবরে পুনরায় জনমনে চিন্তা জাগ্রত হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহিদুর রহমান জানান, যাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে, তাদেরকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে এবং অন্যান্যদেরকে সতর্কতা অবলম্ভনের জন্য ওই সকল বাড়িতে লাল পতাকা টানিয়ে চিহিৃত করে দেওয়া হয়েছে।