মাদারীপুরে চার পুলিশ সদস্যসহ একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত

মাদারীপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় চার পুলিশ সদস্যসহ একদিনে সর্বোচ্চ ২৬ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলার চারটি উপজেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১৪৯ জনে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় (০২ জুন) এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন মাদারীপুরের সিভিল সার্জন মো. সফিকুল ইসলাম।
স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ২১৭ জনের করোনা পরীক্ষার প্রতিবেদন আসে স্বাস্থ্য বিভাগের কাছে। এরমধ্যে ২৬ জনের পজিটিভ আসে। নতুন শনাক্ত ২৬ জনের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ১১ জন শনাক্ত হয়েছে সদর উপজেলায়। এদের মধ্যে সদর থানা পুলিশের একজন উপ-পরিদর্শক ও জেলা গোয়েন্দা পুলিশের এক সদস্য রয়েছেন।

এছাড়াও কালিকিনি উপজেলায় পল্লী বিদ্যুতের এক কর্মকর্তা ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সরকারি অ্যাম্বুলেন্সের চালকসহ আটজন শনাক্ত হয়েছে। যা এই উপজেলায় এখন পর্যন্ত সর্বচ্চো শনাক্ত। শিবচর উপজেলায় থানার দুই পুলিশ সদস্যসহ নতুন করে শনাক্ত হয়েছে পাঁচজন ও রাজৈর উপজেলায় শনাক্ত হয়েছে দুজন। বর্তমানে সরকারি হাসপাতাল ও ঢাকায় চিকিৎসাধীন আছেন ৪৯ জন। বাকিরা হোম আইসোলেশনে চিকিৎসা নিচ্ছে।
এদিকে গত ৩১ মে শনাক্ত হওয়া আজিবুল হোসেন (৩০) নামে যুবককে এখনো খুঁজে পাচ্ছে না পুলিশ। আজিবুল সদর উপজেলার ঝাউদি ইউনিয়নের ব্রাক্ষন্দী এলাকার হোসেন সরদারের ছেলে। তিনি ঢাকার মিরপুর এলাকায় বায়িং হাউজে কাজ করতেন। আজিবুল নিজেকে সুস্থ দাবি করে আত্মগোপনে রয়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ।
স্বাস্থ্য বিভাগের চিকিৎসকরা জানান, জেলায় নতুন করে যারা কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হচ্ছে তাদের সিংহভাগই উপসর্গহীন। এছাড়াও হাট-বাজারে মানুষ সামাজিক দূরত্ব না মেনে চলায় চারটি উপজেলায় করোনার সংক্রমণ হু হু করে বাড়ছে।
মাদারীপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহাবুব হাসান বলেন, ‘করোনায় আমাদের আরও চার পুলিশ সদস্য শনাক্ত হয়েছে। তাদের সংস্পর্শে আসা ১৪ জনকে আমরা কোয়ারেন্টাইন করেছি। এ নিয়ে জেলায় মোট আটজন পুলিশ সদস্য শনাক্ত হলো। তবে আক্রান্ত পুলিশ সদস্যদের করোনা উপসর্গ নেই বললেই চলে। তবুও নতুন আক্রান্তদের আমরা সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে পাঠানো হবে।’
মাদারীপুরের সিভিল সার্জন মো. সফিকুল ইসলাম বলেন, কোভিড-১৯-এ শনাক্ত ২৬ জনের রিপোর্ট আমরা পেয়েছি। যা এ জেলায় এক দিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত। আক্রান্ত ব্যক্তিদের বেশির ভাগই উপসর্গহীন। নতুন আক্রান্তদের হোম আইসোলেশন ও প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে। এর জন্য আমরা প্রতিটি উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তাদের ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা দিয়েছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘জেলায় এখন পুলিশ, স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীসহ সকল শ্রেণি পেশার মানুষ করোনায় আক্রান্ত হচ্ছে। পরিস্থিতি ক্রমশই খারাপের দিকে যাচ্ছে। এ অবস্থায় আমাদের সকলকে সর্বোচ সর্তক অবস্থানে থেকে পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে হবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Next Post

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার

Share on Facebook Tweet it Pin it নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলা থেকে আব্দুর রহমান (৮০) নামের এক বৃদ্ধের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (০২ জুন) বিকেল ৪টার দিকে নান্দিয়া পাড়া কলেজের সামনের একটি কালভার্টের নিচ থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। নিহত আব্দুর রহমান ওই গ্রামের দাসের বাড়ীর আরমান সিকদারের ছেলে। […]

Visit Sristy Barta Facebook Page

https://www.facebook.com/sristybarta/
error: সৃষ্টি বার্তা থেকে কপি করা যাবে না।